৩ দিন ধরে দেয়ালের ভেতর থেকে কান্নার শব্দ, অবশেষে ভেঙ্গে জীবিত শিশু উদ্ধার!

  • 0 28
  • Shared 1 month ago
  • Label: News
  • আন্তর্জাতিক ডেস্ক – দেয়ালের একটি ফাঁকে আটকা পড়েছিল শিশুটি।

    ...

    আন্তর্জাতিক ডেস্ক – দেয়ালের একটি ফাঁকে আটকা পড়েছিল শিশুটি। তিনদিন ধরে আহাজারি করলেও কেউ সাহায্যে করতে এগিয়ে যায়নি। তিনদিন পেরিয়ে গেলে এক নারী ওই শিশুটির কান্নার শব্দ শুনে পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে। নাইজেরিয়ার ওনডো রাজ্যের এ ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে তোলপাড় তুলেছে।rnহতভাগ্য ওই শিশুটির নাম আডুরাগবেমি সাকা। ঘটনার দিন সে তার দাদির সঙ্গে রাগ করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। বাড়ি থেকে বেরিয়ে শিশুটি বাড়ির পাশের দেয়াল ও তৎসংলগ্ন কফি শপের কাছে খেলা করছিল। দুর্ঘটনাবশত বাড়ি ও কফি শপের দেয়ালের মাঝে পড়ে যায় সে।rnrnবিপদ টের পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে চিৎকার কারা শুরু করে শিশুটি। কিন্তু কেউ তার ডাক স্পষ্টভাবে শুনতে পায়নি। প্রতিবেশীরা ভেবেছে হয়তো কুকুর বা অন্য কোনো প্রাণি সেখানে ডাকাডাকি করছে। তাই তারা বিষয়টি এড়িয়ে যান। প্রায় তিনদিন ধরে একই শব্দ ভেসে আসলে এক নারীর সন্দেহ হয়। তিনি স্থানীয় পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ গিয়ে সেই কফি শপের দেয়াল ভেঙে শিশুটিকে জীবিত উদ্ধার করে।rnrnশিশুটির প্রতিবেশী ফেলিসিয়া ওলানিয়ি জানান, শিশুটি তার দাদির সাথে থাকত। রাগ করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল সে। তিনদিন হয়ে গেলেও যখন সে বাড়ি ফেরেনি, তখন চিন্তার পড়েন শিশুটির দাদি। এখানে সেখানে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন বৃদ্ধা।rnrnফেলিসিয়া ওলানিয়ি বলেন, ‘আমি একদিন সেই দেয়ালের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলাম। এমন সময় কান্নার আওয়াজ শুনতে পাই। বিষয়টি নিয়ে প্রতিবেশীদের সঙ্গে আলোচনা করি। কিন্তু তারা বিষয়টিকে তেমন গুরুত্ব দেয়নি। পরে আমি পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে দেয়াল ভেঙে শিশুটিকে উদ্ধার করে।’rnrnপুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে তার দাদির কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে। তিনদিন দেয়ালের ফাঁকে আটকে থেকেও সুস্থ আছে শিশুটি। তবে শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছে।

show more show less