মানুষের মাংসের দোকান! দুদিনেই বিক্রি হলো সব

  • Uploaded 4 months ago in the category

    এক ছুটির দিন সকালে বাজারে গেলেন মাংস কিনতে। গিয়ে দেখলেন মাংসের দোকানটির হুক থেকে ঝুলছে মানুষের হাত-পা, মাথাসহ বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ। সদ্য কেটে ঝুলিয়ে রাখা এসব ম

    ...

    এক ছুটির দিন সকালে বাজারে গেলেন মাংস কিনতে। গিয়ে দেখলেন মাংসের দোকানটির হুক থেকে ঝুলছে মানুষের হাত-পা, মাথাসহ বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ। সদ্য কেটে ঝুলিয়ে রাখা এসব মাংস খণ্ড থেকে টুপটুপ ঝরছে রক্ত। নিশ্চিত বলা যায়, ছুটির দিনের আমেজটা নিমিষেই উধাও হয়ে যাবে।rnহরর ফিল্মের মতো শোনালেও বাস্তবে কিন্তু লন্ডনে এমন একটি দোকান খোলা হয়েছিল। বলা হচ্ছে, এটিই বিশ্বের প্রথম এবং একমাত্র সম্পূর্ণ মানব মাংসের দোকান। লন্ডন শহরের উত্তর-পশ্চিম প্রান্তের একটি এলাকা স্মিথফিল্ড। এলাকাটি বিখ্যাত এর শতাব্দীপ্রাচীন মাংসের পাইকারি বাজারের জন্য। সেখানে গত বছরের সেপ্টেম্বরের দিকে মানুষের মাংস বিক্রির দোকান খোলে ওয়েস্কার অ্যান্ড সন্স। তবে মাত্র দু’দিন চালু ছিল দোকানটি।rnকেন তাদের এমন ব্যবসা আর কেনইবা বন্ধ হয়ে গেল সে কথাটি সব শেষেই না হয় বলা যাক। এক ছুটির দিনেই অদ্ভুত এ ব্যবসাটি শুরু করে ওয়েস্কার। দোকানের শাটার তোলার পর রীতিমতো হইচই পড়ে যায় বাজারে। দেখা যায়, দোকানের দুই পাশে ও সামনের সারি সারি হুক থেকে ঝুলছে মানুষের তাজা হাত-পা, মাথা, কান, পাঁজর এমনকি নাড়িভুঁড়িও। টুপ টুপ করে রক্ত ঝরছে এগুলো থেকে। দোকানের ভেতরেও স্টেইনলেস স্টিলের টেবিল ও কাচের শোকেসে সাজিয়ে রাখা হয়েছে এসব অঙ্গপ্রত্যঙ্গ। পলিথিনে মুড়িয়ে আস্ত মানবদেহও রাখা হয়েছে। প্রতিটি ‘মাংস খণ্ডের’ সঙ্গেই মূল্য সংবলিত কাগজ লাগানো রয়েছে। তাতে হাতের মূল্য লেখা হয়েছে ৫.৯৯ পাউন্ড, পা ৬ পাউন্ড, উরুর মূল্য ২.৯৯ পাউন্ড। দোকানটি চালু করার আগে একটি ওয়েবপেজও খোলে ওয়েস্কার অ্যান্ড সন্স।

show more show less